সিদ্ধিরগঞ্জে নাসিক ডাম্পিং প্রজেক্টে হামলা ভাংচুর লুটপাট আহত-৮

সংবাদটি শেয়ার করুন
0Shares

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধিঃ আলোকিত শীতলক্ষ্যা রিপোর্ট :
সিদ্ধিরগঞ্জে সিটি কর্পোরেশনের বাস্তবায়নাধীন ডাম্পিং প্রজেক্টের ঠিকাদার ও কর্মচারিদের উপর হামলা, ভাংচুর, লুটপাট এবং মারধরের ঘটনা ঘটেছে। রক্তাক্ত জখম হয়েছে ৮ জন। বুধবার (৭ অক্টোবর) রাতে সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি দক্ষিণপাড়া জালকুড়ি সীমান্তে প্রজেক্টের কাজ চলাকালীন সময়ে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক আমিনুল হক ভূঁইয়া রাজুকে প্রধান আসামী করে ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন, সিদ্ধিরগঞ্জ নাসিক ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী মোঃ বদুর উদ্দিন শেখ।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ডাম্পিং এর প্রজেক্টের কাজ পায় ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স ইসলামী পরশ পাথর। কাজটি পাওয়ার পর থেকেই আর্থিক সুবিধা আদায়ের চেষ্টা চালায় সিদ্ধিরগঞ্জ থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক আমিনুল হক রাজু। কোন সুবিধা না পেয়ে বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টার দিকে ২০ থেকে ২৫ জনের একটি দল দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ডাম্পিং প্রজেক্টে কর্মরত কর্মচারীদের এলোপাথারী মারধর করে হামলা চালায়। এ সময় ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের মালিক মাঈনউদ্দিন, নাসিক ৫ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বদুর উদ্দিন শেখ, রাসেল, জোবায়ের, ফারুক মুন্সী, আরফাত, মাসুম ও রোকনকে রক্তাক্ত জখম করে। এসময় প্রজেক্টের ভিতরে প্রতিষ্ঠানের অফিস ভাংচুর ও পৌনে দুই লাখ টাকা দামের একটি মোটরসাইকেল, ৬০ হাজার টাকা দামের রড কাটার একটি মেশিন এবং তাদের সাথে থাকা নগদ ৫ লাখ টাকা লুট করা হয়েছে বলে এজাহারে উল্লেখ করা হয়। বিভিন্ন হুমকি দিয়ে হামলাকারিরা চলে যাওয়ার।

খবর পেয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। আশে পাশের লোকজনের সহায়তায় আহতদের নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা করানো হয়।

এ ঘটনায় রাতেই ৫ নম্বর ওয়ার্ডের ওমরপুর পশ্চিম কলাবাগ এলাকার মৃত বাদশা মিয়া শেখ এর ছেলে আওয়ামীলীগ নেতা বদুর উদ্দিন শেখ (৫৫) বাদী হয়ে মিজমিজি দক্ষিণপাড়া এলাকার কাজেম আলি ভূঁইয়ার ছেলে থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা আমিনুল হক ভূইঁয়া রাজু (৫০) কে প্রধান করে ৮ জনের নাম উল্লেখ ও ১৫-২০ জনকে অজ্ঞাত আসামী করে মামলা দায়ের করেন।

এ বিষয়ে আমিনুল হক ভূঁইয়া রাজুর সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনায় জড়িত নয় দাবি করে বলেন, যারা হামলা করেছে তাদের সঙ্গে আমার কোন সম্পৃক্ততা নেই। ঘটনার সময় আমি এলাকাতেই ছিলামনা।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ফারুক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। হামলাকারীদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। পুলিশ আসামিদের গ্রেফতার করার চেষ্টা চালাচ্ছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন
0Shares

আলোকিত শীতলক্ষ্যা

পরিশ্রমকারীব্যক্তি কখনও ব্যর্থ হয়না এগিয়ে যাও সফল হবে।