রেবতী মোহন পাইলট স্কুল এন্ড কলেজে মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে শহীদদের স্মরণে বিনম্র শ্রদ্ধা

সংবাদটি শেয়ার করুন
0Shares

স্টাফ রিপোর্টার আলোকিত শীতলক্ষ্যা ডটকম : আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙ্গানো একুশে ফেব্রুয়ারী আমি কি ভুলিতে পারি। মায়ের ভাষার দাবিতে বাঙালির আত্মত্যাগের মহিমায়। বাঙালির আত্মগৌরবের স্মারক অমর একুশের। যাদের আত্মত্যাগে আমরা পেয়েছিলাম মায়ের ভাষায় কথা বলার অধিকার।একুশের প্রথম প্রহর থেকে ভাষা শহীদদের স্মরণে বিনম্র শ্রদ্ধায় জেগে উঠেছে সব শহীদ মিনার।

সিদ্ধিরগঞ্জ রেবতী মোহন পাইলট স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষক মন্ডলি, ছাত্র-ছাত্রীসহ সিদ্ধিরগঞ্জ ৯৬নং দক্ষিণ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অমর একুশের আন্তর্জাতিক মহান মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ভাষা শহীদদের স্মরণে স্কুলের শহীদ মিনারের বেদীতে শ্রদ্ধার সাথে পুষ্পস্তবক অর্পন করেন।

শুক্রবার (২১ ফেব্রুয়ারি) সকালে জাতীয় পতাকা উত্তলন, কোরআন তেলোয়াত, একুশের জাতীয় সংগীত পরিচালনা করে এই দিবসটি পালন করেন। এবং মাওলানা ইয়াকুব আলী মিলাদ ও দোয়ায় সকল শহীদদের আত্নার মাগফেরাত কামনা করা হয়।

এসময় শহীদদের স্মরণে শ্রদ্ধার সাথে প্রভাত ফেরি শেষে পুষ্পস্তবক অর্পন করেন, সিদ্ধিরগঞ্জ রেবতী মোহন পাইলট স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ মো.নুর ইসলাম, সহকারী প্রধান শিক্ষক জাহানারা বেগম, মো.ইয়ার হোসেন সদস্য গভর্নিং বডি, শিক্ষক প্রতিনিধি মো. সাইদুর রহমান, মো. শাহজাহান, রাশিদা বেগম, মো. হাবিবুর রহমান ও কলেজ শাখার সহকারি অধ্যাপক মো. মবিনুর রহমান সহ অত্র শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক মন্ডলি ও ছাত্র-ছাত্রী।

বাংলা মায়ের বীর সন্তানেরা মাতৃভাষার সম্মান রক্ষার্থে আজ থেকে ৬৮ বছর আগে ১৯৫২ সালের এই দিনে বুকের রক্তে রঞ্জিত করেছিলেন ঢাকার রাজপথ। পৃথিবীর ইতিহাসে সৃষ্টি হয়েছিল মাতৃভাষার জন্য আত্মদানের অভূতপূর্ব নজির। মাতৃভাষার জন্য বাঙালির আত্মদানের এই অনন্য ঘটনা স্বীকৃত হয়েছে আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে। ১৯৯৯ সালে ইউনেসকো একুশে ফেব্রুয়ারিকে ঘোষণা করে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে। আজ বাঙালির সঙ্গে সারা বিশ্বেই দিনটি পালিত হচ্ছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন
0Shares

আলোকিত শীতলক্ষ্যা

পরিশ্রমকারীব্যক্তি কখনও ব্যর্থ হয়না এগিয়ে যাও সফল হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Follow Us

Follow us on Facebook Us on Twitter On WhatsApp Us