মাদ্রাসার এক ছাত্রী গণধর্ষণের শিকার : অভিযুক্ত তিনজন গ্রেপ্তার

সংবাদটি শেয়ার করুন
0Shares

আলোকিত শীতলক্ষ্যা রিপোর্ট : নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলায় বিধবা এক নারী গণধর্ষণের রেশ কাটতে না কাটতেই (১৪) বছর বয়সী মাদ্রাসার এক ছাত্রী গণধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ।

শুক্রবার ১৬ অক্টোবর সকালে ভুক্তভোগী ছাত্রীর মা বাদী হয়ে আড়াইহাজার থানায় গ্রেপ্তারকৃত তিনজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো-আড়াইহাজার উপজেলার ব্রাহ্মন্দী এলাকায় মোতালিবের ছেলে নজরুল ইসলাম(২৫), তার বড় ভাই বাদল(৩৭), একই এলাকার মধ্যপাড়ার আবুল হোসেনের ছেলে মুছা(২৪)।

মামলার বরাত দিয়ে আড়াইহাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, ‘ভুক্তভোগী কিশোরী স্থানীয় একটি মাদ্রাসার ৮ম শ্রেনির ছাত্রী। সে মাদ্রাসায় আবাসিক হিসাবে থেকে পড়ালেখা করে। নজরুল ইসলাম নিজের পরিচয় গোপন করে সাগর পরিচয়ে ওই কিশোরীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। গত ১২ অক্টোবর মাদ্রাসা থেকে ওই কিশোরী বাড়িতে আসে। পরে সন্ধ্যা ৭টায় মাদ্রাসার উদ্দেশ্যে ঘর থেকে বের হয়ে যায়। কিন্তু রাতে তার মা জানতে পারে কিশোরী মাদ্রাসায় যায়নি।

এদিকে ওইদিন ঘর থেকে বের হয়ে নজরুল ইসলামের সঙ্গে দেখা করে কিশোরী। তখন নজরুল কিশোরীকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। কিন্তু নজরুলের বড় ভাই বাদল ও মুছা গলমন্দ করে কিশোরীকে বাড়িতে পৌঁছে দিবে বলে নজরুলকে সেখান থেকে তাড়িয়ে দেয়। পরে একটি পুকুরের পাশে জঙ্গলে নিয়ে বাদল ও মুছা কিশোরীকে ধর্ষণ করে। এতে কিশোরী অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে ফেলে রেখে দুইজন পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে কিশোরী সহ তার মা এসে থানায় অভিযোগ দেন। পরে রাত থেকে শুক্রবার সকাল পর্যন্ত ব্রাহ্মন্দী এলাকায় অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

0Shares

আলোকিত শীতলক্ষ্যা

পরিশ্রমকারীব্যক্তি কখনও ব্যর্থ হয়না এগিয়ে যাও সফল হবে।