মসজিদের ভয়াবহ দূর্ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৩ জন

সংবাদটি শেয়ার করুন
0Shares

আলোকিত শীতলক্ষ্যা রিপোর্ট : নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় মসজিদে ভয়াবহ বিস্ফোরণের দূর্ঘটনায় মৃত্যু বেড়ে ২৩ জন। রবিবার ৬ সেপ্টেম্বর সকালে মারা গেছেন তারা হলেন, শামীম হাসান (৪৫), জুলহাস উদ্দিন (৩০)।

শেখ হাসিনা বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে হাসপাতালে এখনও চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১৪ জন।

মসজিদের ভয়াবহ দূর্ঘটনায় দগ্ধ ৩৭ জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ন ইউনিটে নেয়া হয়েছিলো।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত দগ্ধ ৩৭ জনের মধ্যে মারা যাওয়া ২৩ জন হলেন…
মসজিদের ইমাম মো. আব্দুল মালেক (৬০), মসজিদের মুয়াজ্জিন মো. দেলোয়ার হোসেন(৪৫), সাব্বির(২২), জুনায়েদ(৭), জামাল(৪০), জুবায়ের(১৪), হুমায়ূন কবির(৭০), মোস্তফা কামাল(৩৪), ইব্রাহিম(৪৩), রিফাত(১৮), জুনায়েদ(১৭), কুদ্দুস বেপারী(৭২), রাশেদ(৩০), জয়নাল(৫০), মাইনুদ্দিন(১২), নয়ন(২৭) কাঞ্চন হাওলাদার(৫০), মো. রাসেল(৩৪), বাহার উদ্দিন(৫৫), মিজান(৩৪) ও সাংবাদিক নাদিম(৪৫), শামীম হাসান (৪৫), জুলহাস উদ্দিন (৩০),।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত হাসপাতালের চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১৪ জন..
ফরিদ (৫৫), শেখ ফরিদ (২১), মনির (৩০), আবুল বাসার মোল্লা (৫১), মো. আলী মাস্টার (৫৫), মো. কেনান (২৪), নজরুল ইসলাম (৫০), রিফাত (১৮), আব্দুল আজিজ (৪০), হান্নান (৫০), আব্দুস সাত্তার (৪০), আমজাদ (৩৭), মামুন (২৩) এবং ইমরান (৩০)।

শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের প্রধান সন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন জানান, সবাই ৭০, ৮০ ও ৯০ পার্সেন্টের ওপর বার্ন। তবে প্রাথমিকভাবে বলা যায়, কেউ শঙ্কামুক্ত নয়। তাদের অবস্থা অনেক খারাপ বলে মনে করছি। এ ঘটনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশ দিয়েছে রোগীদের সর্বাত্মক চিকিৎসা দেয়ার জন্য। তিনি আরও বলেন, আমরা আমাদের সর্বাত্মক চেষ্টা করছি। সরকার প্রধান সব সময় খবর নিচ্ছেন এই রোগীদের জন্য। দেশবাসীকে অনুরোধ করবো দোয়া করার জন্য।

শনিবার বিকেল ৩টা থেকে বিস্ফোরণে মৃতদেহ ময়নাতদন্ত ছাড়াই স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাহিদা বারিক ও জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. জাহেদ পারভেজ চৌধুরী উপস্থিত থেকে স্বজনদের কাছে মরদেহ হস্তান্তর করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন
0Shares

আলোকিত শীতলক্ষ্যা

পরিশ্রমকারীব্যক্তি কখনও ব্যর্থ হয়না এগিয়ে যাও সফল হবে।