কিশোর গ্যাং অপহরণ চক্রের ১১সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১১,অপহৃত কিশোর উদ্ধার

সংবাদটি শেয়ার করুন
0Shares

আলোকিত শীতলক্ষ্যা রিপোর্ট : নারায়ণগঞ্জ জেলার ফতুলা মডেল থানাধীন চাঁনমারী মাউরাপট্টি সেকশনমাঠ এলাকায় একটি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে এলাকায় ত্রাস ও জনমনে ভয়ভীতি সৃষ্টিকারী কিশোর গ্যাং অপহরণ চক্রের ১১ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব -১১’র একটি আভিযানিক দল।

গ্রেফতারকৃতরা হলো- মো. রাসেল মিয়া @ রাসেল (১৮), মো. জালাল (১৮), মো. আমিনুল ইসলাম (২৩), মো. জনি @ শফিকুল ইসলাম (১৮), মো. জাকির হোসেন @ জাকির (১৮), মো. আনোয়ার (১৮), মো. জুয়েল রানা (২২), মো. আবু নাঈম (১৮), মো. ফেরদৌস ইসলাম (১৮), মো. আব্দুল্লাহ @ শুভ (২৪) ও মোঃ সাইফুল ইসলাম @ শান্ত (১৮)। এ সময় বিশোর গ্যাং’র হাতে অপহৃত এক কিশোরকে উদ্ধার করেছে র‌্যাব সদস্যরা। শনিবার (১০ অক্টোবর) বিকেলে গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেন র‌্যাব-১১’র সিনিঃ এএসপি মো. সুমিনুর রহমান।

র‌্যাব-১১’র সিনিঃ এএসপি মো. সুমিনুর রহমান জানান, গত ৮ অক্টোবর কিশোর গ্যাং গ্রুপের উক্ত সদস্যরা অপর এক কিশোরকে অপহরণ করে চাঁনমারী মাউরাপট্টি সেকশনমাঠ এলাকায় একটি পরিত্যক্ত ভবনে আটকে রাখে এবং মারধর করে তার কাছে থেকে ৩ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। পরবর্তীতে অপহৃতর মায়ের কাছে ফোন করে ৪০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করলে তিনি ১০ হাজার টাকা দিবে বলে জানায়।

এঘটনার পর অপহৃতর মা র‌্যাবের কাছে একটি অভিযোগ করে। ভিকটিম এর মায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে র‌্যাব-১১ ঘটনার সত্যতা পেয়ে গত ৯ অক্টোবর (শুক্রবার) দিবাগত রাতে বিশেষ একটি আভিযানিক দল অভিযান চালিয়ে অপহৃতকে উদ্ধার করে এবং কিশোর গ্যাং এর ১১ জন সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করে।

তিনি আরো জানান, গ্রেফতারকৃতরা সবাই দুষ্কৃতিকারী ও কিশোর গ্যাং গ্রুপের সক্রিয় সদস্য। এরা দীর্ঘদিন যাবৎ রাস্তা ঘাটে পরিকল্পিতভাবে দলবদ্ধ হয়ে সংঘাত সৃষ্টি ও জনমনে ভয়ভীতি দেখিয়ে এলাকায় ত্রাস সৃষ্টি করে আসছিল। এছাড়াও ওই এলাকায় কোন অপরিচিত লোক আসলে জিম্মি করে মূল্যবান জিনিসপত্র জোরপূর্বক ছিনিয়ে নেয়। গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে ফতুল্লা থানায় আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধী রয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন
0Shares

আলোকিত শীতলক্ষ্যা

পরিশ্রমকারীব্যক্তি কখনও ব্যর্থ হয়না এগিয়ে যাও সফল হবে।