অসহায় ও কর্মহীন পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী সিদ্ধিরগঞ্জে জনকল্যাণ সমিতির উদ্যোগে

সংবাদটি শেয়ার করুন
0Shares

বিশেষ প্রতিনিধি আলোকিত শীতলক্ষ্যা : বর্তমানে সারা বিশ্বে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস মহামারি আকার ধারণ করেছে এবং জনজীবন বিপর্যস্ত করছে। করোনা ভাইরাসের থাবায় আক্রান্ত সারাবিশ্বের মানুষ। দিনের পর দিন এ ভাইরাসের প্রকোপ বেড়েই চলেছে। লকডাউন হয়ে গেছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ। ইতোমধ্যে বাংলাদেশেও বিস্তার লাভ করেছে ভাইরাসটি। এর দ্রুত বিস্তার রোধে লকডাউন ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ সরকার। মরণঘাতী ভাইরাস করোণার ভয়াল থাবায় নাকাল দুঃস্থ, দরিদ্র, অসহায়, দিন মজুর, মধ্যবিত্ত পরিবারের এবং খেটে খাওয়া মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছেন জনকল্যাণ সমিতির সদস্যরা।

বুধবার (১৫ এপ্রিল) সকাল ১০টায় নাসিক ১নং ওয়ার্ড পাইনাদী নতুন মহল্লা এলাকায় ২ শতাধিক অসহায় পরিবারের মাঝে চাল, ডাল, পিয়াজ, লবন খাদ্যসামগ্রী হিসেবে বিতরণ করা হয়েছে।

এ সময় জনকল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান ও সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট আবদুল লতিফ মিয়া বলেন, করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য সচেতন ও সাবধান থাকতে হবে। সরকারের দেয়া নিয়ম মোতাবেক সাবান পানি দিয়ে বারবার হাত ধোয়া, হাঁচি কাশির সময় মাস্ক ব্যবহার করা এবং সর্দি কাশি হলে সাথে সাথে চিকিৎসকের কাছে যাওয়ার অনুরোধ করছি। তিনি আরো বলেন, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে দেশব্যাপি লকডাউন চলছে। কিন্তু সমাজের একটি অবিচ্ছেদ অংশ অনাহারে কাটানো দুঃস্থ, দরিদ্র, দিনমজুর, অসহায় ও খেটে খাওয়া মানুষের কথা কেউ যখন ভাবছেনা না। দেশব্যাপি লক ডাউন শুরু হলেও দেশে অনেকে আছেন যারা সকালে কাজে না গেলে অনিশ্চিত হয়ে পড়ে তাদের দুপুরের খাবার। আমি আমার সাধ্যমত চেস্টা করেছি এসব অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে। চাল, ডাল, আলু, পিয়াজ, লবন সহ নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী কিনে নিজ হাতে প্যাকেট করে তা অসহায়দের মাঝে বিতরন করছি।

এ সময় সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন সাবেক ছাত্রনেতা, বাংলাদেশ স্বেচ্ছাসেবক ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় ধর্ম বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য, নারায়ণগঞ্জ জেলা তাঁতী লীগ একাংশের সভাপতি, জাতীয় ডিজিটাল সড়ক পরিবহন শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি জসীম উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী।

গণমাধ্যমকে জসীম উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী বলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলাকে ইতিমধ্যে অনির্দিষ্টকালের জন্য লকডাউন ঘোষণা করেছে (আইএসপিআর)। করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ কার্যক্রম জোরদার করার লক্ষ্যে ৮ এপ্রিল থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত এ জেলাকে সম্পূর্ণরূপে অবরুদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। তবে জরুরি পরিষেবা যেমন চিকিৎসা, খাদ্য দ্রব্য সরবরাহ এর আওতা বহির্ভূত থাকবে। বর্তমান পরিস্থিতিতে গৃহবন্দি হয়ে পড়েছে নিম্ন আয়ের অসহায় ও হতদরিদ্র মানুষগুলো। বিশেষ করে খেটে খাওয়া মানুষগুলো কর্মহীন হয়ে পড়েছে। এমন পরিস্থিতিতে সকল জনপ্রতিনিধি ও বিত্তবানদেরকে অসহায় ও নিম্ন আয়ের মানুষের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়ার অনুরোধ জানাচ্ছি। ইতোমধ্যে আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জাতির জনকের কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা স্থানীয় প্রশাসনের মাধ্যমে এ সকল দরিদ্র জনগণের কষ্ট লাঘবের জন্য বিশেষ প্রণোদনা ব্যবস্থা চালু করেছেন এবং তাদের সাহায্য-সহযোগিতা প্রদান অব্যাহত রেখেছেন। বর্তমান পরিস্থিতিতে সরকারের পাশাপাশি আওয়ামী লীগের সকল নেতা-কর্মী ও বিশেষ করে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদেরকে জনগণের পাশে দাঁড়াতে বলেছেন। আর সরকার বরাদ্দকৃত খাদ্য সামগ্রী সঠিক ভাবে অসহায় মানুষগুলোর কাছে বিতরণ করা এবং তাদের পৌঁছে দিতে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের প্রতি অনুরোধ জানাচ্ছি । এগুলো অসহায় জনসাধারণের হক তা থেকে তাদেরকে বঞ্চিত করবেন না। তিনি আরও বলেন, আপনারা আতংকিত হবেন না। ধৈর্য্য দায়িত্বশীলতা ও দেশপ্রেম নিয়ে একযোগে সবাইকে এই প্রাণঘাতী ভাইরাস প্রতিরোধে কাজ করতে হবে। ঘরে ঘরে সচেতনতা ও সতর্কতার দূর্গ গড়ে তুলতে হবে। আমাদের সম্মিলিত প্রয়াসে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশে প্রাণঘাতি নভেল করোনা ভাইরাস নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধে সক্ষম হবো ইনশাআল্লাহ’।

এসময় জনকল্যাণ সমিতির সদস্য সচিব এডভোকেট কাজী লিয়াকত আলী, বাংলাদেশ আওয়ামী হকার্স লীগের প্রতিষ্ঠাতা লিয়াকত হোসেন খানঁ রনি, জাতীয় ডিজিটাল সড়ক পরিবহন শ্রমিক লীগ নারায়ণগঞ্জ জেলা শ্রমিক কমিটির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোঃ বদরুজ্জামান প্রধান, নারায়ণগঞ্জ জেলা তাঁতী লীগ একাংশের প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক হৃদয় আহম্মেদ চৌধুরী সহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, জনকল্যাণ সমিতির সদস্যগণ উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন
0Shares

আলোকিত শীতলক্ষ্যা

পরিশ্রমকারীব্যক্তি কখনও ব্যর্থ হয়না এগিয়ে যাও সফল হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.